Friday , 14 August 2020

সংবাদ শিরোনাম
Home » প্রচ্ছদ » জনগণের দোয়াই আমার পিপিই : সোয়েব আহমদ

জনগণের দোয়াই আমার পিপিই : সোয়েব আহমদ

বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান'র স্মৃতিতে দুঃসহ রাজনৈতিক জীবন

May 8, 2020 1:33 am Leave a comment A+ / A- সংবাদটি ১৩৬৫ বার পাঠ করা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক :: রাজনীতি করতে গিয়ে একজন রাজনীতিবিদকে অনেক ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করেই এগিয়ে যেতে হয় সম্মুখপানে। একজন প্রকৃত রাজনীতিককে দুঃসহ যন্ত্রণা সয়েই মাঠে টিকে থাকতে হয়। সংগ্রাম করে, ভয়হীনভাবে, দমে না গিয়ে। ধাপে ধাপে অগ্রসর হয়েই নিজস্ব স্বকীয়তা অর্জন করেন একজন প্রকৃত রাজনীতিক।রাজনীতির মাঠ যে পিচ্ছিল, কতো কঠিন আর নির্মম হতে পারে এরই বাস্তব রূপ তুলে ধরেছেন মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ। গত ০৭ মে ভোররাতে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের সংগ্রামময় করুণ স্মৃতিকথাটি আত্মউপলব্ধি নাম দিয়ে স্ট্যাটাস দিলে মুহূতেইম ভাইরাল হয়ে যায় ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে। বড়লেখা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের পাঠকদের জন্য হুবহু সেটি তুলে ধরা হলো :

“Lockdown (তালাবদ্ধ হওয়া),home quarantine (গৃহবন্দী), self isolation (নিজে নিজে আলাদা থাকা), social distance(সামাজিক দূরত্ব),P P E(ব্যক্তিগত সুরক্ষা)। যদিও শব্দগুলা নতুন কয়েক মাস যাবত আমাদের মাঝে পরিচিত। তবুও এই শব্দগুলোর অর্থবোধ টার মাঝে নিজের জীবনের কিছু সময়ের মিল খুজে পাই।
১৯৮৭ সালের ৭ই ডিসেম্বর থেকে ১৯৮৮ সালের ২৭ মার্চ পর্যন্ত মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে রাজনৈতিক মামলায় ডিটেনশনে (দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ), লকডাউন বা কুয়ারেন্টের মত। ১৯৯৪ থেকে ১৯৯৬ এর এপ্রিল পর্যন্ত রাজনৈতিক মামলা, হামলা, আত্মগোপন, পলাতক জীবন, আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে লুকায়িত থাকা, গ্রেপ্তার এড়াতে তখনকার সময় আজকের সেল্ফ আইসোলেশন বা কোয়ারান্টিনের মতন।১৯৯৬ সালের ১০ই মে আবার গ্রেপ্তার, ফের ডিটেনশন, সাথে পায়ে ডাণ্ডাবেড়ি, প্রায় তিন মাস মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে কারাভোগ।২০০২ সাল ডিসেম্বরে অপারেশন ক্লিন হার্ট , ছোট ভাই জুয়েল বিনা অপরাধে সেনাবাহিনীর হাতে গ্রেফতার, নির্যাতন, দীর্ঘদিন মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে কারা বাস। নিজে সেনাবাহিনীর গ্রেপ্তার এড়াতে দীর্ঘদিন পলাতক। ছোট ভাই জেলে, নিজে পলাতক, পুরুষশূন্য বাড়িতে বাড়ি ছেড়ে মা নানার বাড়িতে, স্ত্রী শশুর বাড়িতে, নিজের বাড়ি মানুষ শূন্য যেন লকডাউন। এভাবে পলাতক বা আত্মগোপন ২০০৬ সাল পর্যন্ত। তারপর ১/১১ আরো প্রায় দুই বছর ২০০৮ পর্যন্ত গ্রেফতার এড়াতে লকডাউন, কোয়ারেন্টাইন, আইসোলেশন, সোশ্যাল ডিসটেন্স, পালন করতে হয়েছিল। এখনকার লকডাউনে যেমন সময় মত ঘড়ি দেখে খাওয়া, ঘুমানো, সোশ্যাল ডিসটেন্স মেনন্টেইন করা। ঠিক তেমনি আত্মগোপনে থাকা বাড়ির পাশের বাড়ির লোকজনও জানতো না এমন ভাবে থাকতে হতো। পলাতক ও কারাবাসের সময় ছাড়া এরকম সময় মেনন্টেইন করে খাওয়া, গোসল, ঘুমানো আর কখনো সম্ভব হয় নাই। আর p p e (personal protection equipment) সেই সময় ও ছিল। পুলিশ ও প্রতিপক্ষ থেকে safe থাকতে মাথায় হেলমেট, জিন্স প্যান্ট, কেডস জুতা, গ্লাভস, নিজের নিরাপত্তার জন্য পকেটে ছোটখাটো কিছু। জুমার নামাজ, তারাবির নামাজ, এমনকি অনেক ঈদের নামাজ আজকের মত মিস হয়েছে। সেই সময় থেকে শৃঙ্খলিত জীবনের প্রতি ছিল বিদ্বেষ। আজকে বাংলাদেশ ৪৩ দিন লকডাউন আমি অবশ্যই প্রতিদিন এক – দুই ঘন্টার জন্য বাহিরে গেছি সরকারি ত্রাণ বিতরণ বা সঠিক ভাবে বিতরণ দেখ‌ভাল করা এবং ব্যক্তিগত ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। তখনকার পুলিশি ভীতি বা রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের কারণে যেভাবে রাজনৈতিক মাঠ ছেড়ে পিছ পা হই নাই আজও করোনা ভাইরাস নামক মহামারীর সময় অনেকটা ঝুঁকি নিয়েও জনগণের পাশে থাকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আল্লাহর মেহেরবানী ও জনগণের দোয়াই আমার p p e।
#এই কথাগুলো আত্মপ্রচার মূলক কোন বক্তব্য নহে শুধু অবসর সময়ে হৃদয়ের উপলব্ধি। এরকম তীক্ষ্ণ অভিজ্ঞতা বড়লেখার রাজনীতিক অঙ্গনে অনেকেরই আছে বিশেষ করে বদর মামা, সুন্দর ভাই, কামরান ভাই, আফতার ভাই, নীল ভাই, জেহিন, রুহুল চৌ: (আমেরিকা)শিপলু, নাজিম (লন্ডন), টনি, সজল বাবু, আব্দুল লতিফ (মেম্বার), জুয়েল, মৌলুদ,দুলাল চৌধুরী(ফ্রান্স),মিথুন(ফ্রান্স),কায়ছার,আহাদ ভাই,তাজউদ্দীন, বাদল(সজলের বড় ভাই), সজল (ইটালি) ইকবাল ভাই, তোফায়েল (বর্তমানে আমেরিকা), উজ্জল (আমেরিকা), ইসলাম, নিজাম, মিলন রবি, আবুল (কাঠালতলী), উত্তম, কুটিম, শামীম, আছকর ভাই সহ আরো অনেকে।(অনেকের নাম ভুলে বাদ পড়তে পারে)
#যদিও সরকার ঘোষিত লকডাউন কিছুটা শিথিল হচ্ছে তারপরেও এই করোনা ভাইরাসের মহামারী থেকে বাঁচতে বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে যাবেন না। সরকার ঘোষিত লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। (এ আধাঁর কেটে গিয়ে সোনালী সূর্য উঠবেই এই প্রত্যাশায়)।”
#আল্লাহ হাফেজ।
#সোয়েব আহমদ, চেয়ারম্যান বড়লেখা উপজেলা পরিষদ।
সাংগঠনিক সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বড়লেখা উপজেলা শাখা।

জনগণের দোয়াই আমার পিপিই : সোয়েব আহমদ Reviewed by on . নিজস্ব প্রতিবেদক :: রাজনীতি করতে গিয়ে একজন রাজনীতিবিদকে অনেক ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করেই এগিয়ে যেতে হয় সম্মুখপানে। একজন প্রকৃত রাজনীতিককে দুঃসহ যন্ত্রণা সয়েই মাঠে টি নিজস্ব প্রতিবেদক :: রাজনীতি করতে গিয়ে একজন রাজনীতিবিদকে অনেক ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করেই এগিয়ে যেতে হয় সম্মুখপানে। একজন প্রকৃত রাজনীতিককে দুঃসহ যন্ত্রণা সয়েই মাঠে টি Rating: 0
scroll to top

Developed by: